স্বাস্থ্য

চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত ১৯৮

নিজস্ব প্রতিবেদক:

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৮ জনের শরীরে পাওয়া যায় প্রাণঘাতি এই করোনাভাইরাসের জীবাণু। এদের মধ্যে ১৬৯ জনই নগরের, বাকি ২৯ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। অন্যদিকে, টানা চতুর্থ দিনের মতো চট্টগ্রাম করোনায় মৃত্যুহীন দিন পার করলো।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনা শনাক্ত রোগী এখন ২৬ হাজার ২৬৩ জন। এদের মধ্যে নগরের রোগী ১৯ হাজার ৯২৩ জন এবং উপজেলা পর্যায়ে ৬ হাজার ৩৪০ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন ৩২০ জন, যাদের ২২৫ জন নগরের এবং ৯৫ জন উপজেলার। অন্যদিকে ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২৩ হাজার ৪৬৮ জন।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।

তিনি গত ২৪ ঘণ্টার পরিসংখ্যান তুলে ধরে জানান, ‘২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি সাতটি ল্যাবে এক হাজার ২৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৯৮ জনের দেহে। এদের মধ্যে ১৬৯ জন নগরের এবং ২৯ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি।’

সিভিল সার্জনের তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের প্রধান করোনা পরীক্ষাগার ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে বিদেশগামীদের বাধ্যতামূলক করানো টেস্টসহ ৪৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করানো হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় ১২ জনের দেহে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৩১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় দিনের সর্বোচ্চ ৯৮ জনের দেহে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জনের দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া গেছে। নগরের বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জনের মধ্যে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া যায়। চট্টগ্রামের আরেকটি বেসরকারি করোনা পরীক্ষাগার শেভরণ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রামে বেসরকারি পর্যায়ে সর্বশেষ যুক্ত হওয়া করোনার আরেকটি পরীক্ষাগার চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ২৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জনের দেহে করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের কারও নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল রিজিওন্যাল টিউবারকুলোসিস র‌্যাফারেল ল্যাবরেটরিতেও (আরটিআরএল) ২৪ ঘণ্টায় কারও নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

 

Related Posts